অভিজিৎ রায় হত্যার আসামী খুঁজে দিতে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা!

আলোচিত ব্লগার অভিজিৎ রায়ের হত্যাকারীর ধরিয়ে দিতে পুরস্কার ঘোষণা করেছে আমেরিকান সংগঠন ‘রিওয়ার্ড ফর জাস্টিস’ এই পুরস্কার ঘোষণা করেছে। হত্যাকারী সম্পর্কে তথ্য দিতে পারলে ৫০ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে এক বিবৃতিতে।আরও উল্লেখ করা হয় ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে স্ত্রীসহ ঢাকার এজটি বইমেলা থেকে বের হওয়ার সময় আল কায়েদা সমর্থিত সন্ত্রাসী বাহিনী কুপিয়ে হত্যা করে অভিজিৎকে।এতে তার স্ত্রীও মারাত্মকভাবে আহত হন। 

ঢাকার একটি আদালত আসামীদের মধ্যে দু’জন সৈয়দ জিয়াউল হক (ওরফে মেজর জিয়া) এবং আকরাম হোসেনের অনুপস্থিতিতে বিচারকার্য সম্পন্ন হয়েছিল এবং তারা এখনও পলাতক রয়েছেন,’ উল্লেখ করা হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে ‘হক, হোসেন বা হামলার সঙ্গে জড়িত অন্য কারও সম্পর্কে আপনার নিকট কোনও তথ্য থাকলে নিচের নম্বরটি ব্যবহার করে সিগন্যাল, টেলিগ্রাম বা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে আপনার তথ্য আমাদের নিকট প্রেরণ করুন৷ সেক্ষেত্রে আপনিও পুরস্কার পেতে পারেন৷’ খুনিদের সম্পর্কে তথ্য দিতে ইংরেজিতে +1-202-702-7843 নম্বরটি ব্যবহার করতে বলা হয়েছে৷

উল্লেখ্য যে অভিজিৎ রায় একজন নাস্তিক ব্লগার, পেশায় ছিলেন একজন প্রকৌশলী, তিনি একই সাথে বাংলাদেশ এবং আমেরিকার নাগরিক। তিনি আধুনিক বিজ্ঞান, নাস্তিকতা, সমকামিতা এবং দর্শন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে তার পত্র-পত্রিকা,নিজস্ব ব্লগ সাইটে লেখালেখি করতেন।
২০১৫ সালে একুশে বইমেলা থেকে আসার পথে টিএসসিতে হামলার শিকার হন। ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হলে অভিজিৎ রাত সাড়ে দশটা নাগাদ মৃত্যুবরণ করেন।
অভিজিতের পিতা অজয় রায় ২৭শে ফেব্রুয়ারি শাহবাগ থানায় হত্যার অভিযোগ দায়ের করেন
অভিজিৎ রায় হত্যা মামলায় ২০২১ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

Related posts

Leave a Comment